টেলিভিশন চ্যানেলের কদর্য ভাষা প্রয়োগ দিশা পাটানির ওপর! - Chuadanga News | চুয়াডাঙ্গা নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Sidebar Ads

test banner

Breaking

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Tuesday, February 6, 2018

টেলিভিশন চ্যানেলের কদর্য ভাষা প্রয়োগ দিশা পাটানির ওপর!

খবরকে উত্তেজক করে তোলা। এই নিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই। বিশেষ করে যে ভাবে টিআরপি বাড়াতে টেলিভিশন নিউজ চ্যানেলগুলির একটা অংশ খবরকে সেনসেশন-এর তকমা দিতে চায়- তাতে বিপদ আরো বাড়ে। এবার তেমনই এক ঘটনা ঘটল। আর এই কর্দয ভাষা এবং ভাবনার শিকার হলেন বলিউডের অভিনেত্রী দিশা পাটানি। নিউজ ২৪ বলে একটি টেলিভিশন নিউজ চ্যানেল সম্প্রতি দিশা পাটানির একটি স্কুল জীবনের ছবিকে সামনে নিয়ে আসে। স্কুল ছাত্রী দিশাকে সুন্দরী দেখালেও ছবিটি তাঁর বর্তমান লুকের মতো গ্ল্যামারাস ছিল না। আর এই ছবিকেই জঘন্য পাবলিসিটি এবং টিআরপি-র জন্য নিউজ ২৪ হাতিয়ার করে বলে অভিযোগ। দিশা-র স্কুল জীবনের ছবির পাশে তাঁর বর্তমান ছবি লাগিয়ে টুইট করে নিউজ ২৪। ইংরাজিতে করা এই টুইটি ছিল- ‘ক্যান ইউ বিলিভ হাউ আগলি দিশা পাটানি লুকড ওয়ান্স, সি দ্য কন্ট্রাস্ট’। এর বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায় ‘বিশ্বাস করতে পারবেন যে দিশা পাটানি দেখতে কতটা কুরূপা ছিলেন, দেখুন অদল-বদল’।এই টুইট দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়েন দিশা পাটানি। তবে মার্জিত ভাষাতেই তিনি নিউজ ২৪-এর এমন কদর্য খবর পরিবেশনকে আক্রমণ করেন। তিনিও পাল্টা টুইট করে জানান, ‘নিউজ ২৪ আপনারা ঠিকই বলেছেন, ক্লাস সেভেনে পড়া মেয়ের তো উচিত লিপস্টিক লাগিয়ে, মেক আপ করে স্কুলে যাওয়া’। নিউজ ২৪-এর এমন খবর পরিবেশনকে অন্যরাও টুইটারে তুলোধনা করেন। যদিও, এমন কদর্য খবর পরিবেশনের পরে নিউজ ২৪-এর কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। সম্প্রতি সুন্দরী অভিনেত্রী দিশা পাটানিকে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টেও কদর্য ভাষায় একজন আক্রমণ করেন। জিও- ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড-এর অনুষ্ঠানে বক্ষ চেরা গাউন পরেছিলেন দিশা। আর এতে তাঁকে নোংরা নারী এবং নিজের স্তন যুগল সকলকে তিনি প্রদর্শিত করছেন বলেও মন্তব্য সইতে হয়। যদিও এই নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া সে সময় দেননি দিশা। আসলে, নারীদের উদ্দেশ্যে নোংরা মন্তব্য করারর যে চল আগেও ছিল এখন তা যেন উত্তোরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সাধারণ মানুষ এখন সেলিব্রিটির সঙ্গে যোগাযোগ করার সহজ উপায় পেয়ে গিয়েছেন। আর এখানেই হচ্ছে সমস্যার। কারণ, কোন কথা প্রকাশ্যে বলতে হয় কোনটা হয় না সেই বোধটাই হারিয়ে যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের মন থেকে। যার দোষে দুষ্ট এখন ভারতীয় সংবাদমাধ্যমও।

No comments:

Post a Comment

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here