ভূঞাপুর ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজে স্মার্টফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা - Chuadanga News | চুয়াডাঙ্গা নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Sidebar Ads

test banner

Breaking

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Sunday, December 24, 2017

ভূঞাপুর ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজে স্মার্টফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের স্মার্টফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। গত ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখের একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানায় কলেজ কর্তৃপক্ষ।কলেজ অধ্যক্ষ অধ্যক্ষ বেনজীর আহাম্মেদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের ছাত্র/ছাত্রীদের ১ জানুযারি ২০১৮ তারিখ হতে কলেজ ক্যাম্পাসে বা ক্লাসে স্মার্টফোন ফোন ব্যবহার ও বহন নিষিদ্ধ। এছাড়া কলেজে শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে বা ক্লাসে স্মার্টফোন ব্যবহার না করা বা স্মার্টফোন না আনার সর্বোচ্চ হুশিয়ারি পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে।এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ইবরাহীম খাঁ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ বেনজীর আহাম্মেদ সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, বর্তমানে স্মার্টফোনের কারণে ক্লাসে পড়ুয়াদের মনসংযোগ কমে যাচ্ছে। ফেসবুক ও হোয়াটস অ্যাপের মতো সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যস্ত থাকার কারণে ছাত্রছাত্রীদের পড়ার বা শেখার আগ্রহ কমে যাচ্ছে। ক্লাস চলাকালীন সময়ও অধিকাংশ শিক্ষার্থীকে স্মার্টফোন ব্যবহার করতে দেখা যায়। এছাড়া ছেলেরা ক্লাস বাদ দিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে এবং মেয়েরা কমন রুমে বসে স্মার্টফোন ব্যবহার করে।
তিনি আরও বলেন, কলেজের অধিকাংশ ছেলে-মেয়েই গ্রামের দরিদ্র পরিবারের সন্তান। তাদের পরিবার অনেক কষ্ট করে জীবনের সঙ্গে যুদ্ধ করে ছেলে-মেয়েকে কলেজে লেখাপড়া করাচ্ছেন। ছেলে-মেয়েরা কলেজে এসে তাদের এক বন্ধুর হাতে দামি স্মার্টফোন দেখে বাড়িতে গিয়ে পরিবারকে স্মার্টফোন কিনে দেওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছে, এতে পরিবারে অশান্তি দেখা দিচ্ছে। আর শুধু এই কলেজ নয়, এখন অনেক কলেজেই পর্যায়ক্রমে স্মার্টফোন ব্যবহার নিষিদ্ধ করছে। এতে শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরাই লাভবান হবে, সেই সাথে শিক্ষাক্ষেত্রেও শৃঙ্খলা ফিরে আসবে। এদিকে কলেজে স্মার্ট ফোন ব্যবহার না করা এবং শিক্ষার মানোন্নয়ে কলেজ প্রশাসনের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন বিভিন্ন সচেতন মহল। তারা বলছেন, মোবাইল ব্যবহারে শিক্ষার্থীদের মধ্যে যাতে নেতিবাচক প্রভাব না পড়ে সেক্ষেত্রে কলেজ কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি অভিভাবক ও শিক্ষকদের সজাগ থাকতে হবে।’

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here