ভালোবাসার জোয়ার আবার বেলের জীবনে - Chuadanga News | চুয়াডাঙ্গা নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Sidebar Ads

test banner

Breaking

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Sunday, November 15, 2020

ভালোবাসার জোয়ার আবার বেলের জীবনে


রিয়াল মাদ্রিদে শেষ সময়টাতে একটু যেন এলোমেলো হয়ে পড়েছিলেন গ্যারেথ বেল। ওয়েলস ফরোয়ার্ডকে দেখে মনে হতো ফুটবল খেলাটার সঙ্গে প্রেমটা আর তাঁর অবিশষ্ট নেই! তবে রিয়াল ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই যেন আবার গা ঝাড়া দিয়ে উঠেছেন বেল। তাঁর চলনে–বলনে ফিরে এসেছে আগের সেই উচ্ছ্বাস আর উদ্দীপনা। বিষয়টি চোখে পড়েছে ওয়লেস দলের সহকারী কোচ রবার্ট পেজেরও। তাঁর কাছে মনে হচ্ছে আবার ফুটবলের ভালোবাসার জোয়ারে ভাসছেন বেল!

রিয়ালে শেষ সময়ে বেলের জীবনটা খাপছাড়া হয়ে যাওয়ার কারণও আছে। জিনেদিন জিদান আবার সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ফেরার পর থেকেই রিয়ালে ব্রাত্য হয়ে পড়েন বেল। প্রথমে একাদশে অনিয়মিত হয়ে পড়েন। এরপর তো বেঞ্চই হয়ে যায় তাঁর স্থায়ী ঠিকানা! একটা সময় বেঞ্চ থেকেও ছিটকে পড়েন। ফুটবলের প্রতি ভালোবাসাটা হয়তো তখনই হারিয়ে ফেলতে শুরু করেন। সেই সময় তো বেলকে ফুটবলের চেয়ে গলফ নিয়েই বেশি আগ্রহী মনে হচ্ছিল!

তবে চলতি মৌসুমে রিয়াল ছেড়ে ধারের চুক্তিতে বেল নাম লেখান তাঁর পুরোনো ক্লাব টটেনহামে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের এই ক্লাব থেকেই ট্রান্সফার ফির রেকর্ড গড়ে রিয়ালে নাম লিখিয়েছিলেন। টটেনহামে ফেরার পর মাঠে নামতে একটু দেরি হয়েছে বেলের। জোসে মরিনিওর দলের সঙ্গে চুক্তি করার সময় চোট ছিল তাঁর। চোট সেরে মাঠে নেমেছেন। টটেনহামের হয়ে লিগে তিনটি ম্যাচও খেলে ফেলেছেন। একটি গোলও করেছেন। সবচেয়ে বড় কথা তাঁকে দেখে মনে হচ্ছে ধীরে ধীরে পুরোনো ছন্দটা খুঁজে পাচ্ছেন।

৩১ বছর বয়সী বেলের এই ছন্দে ফেরা দেখে উচ্ছ্বসিত তাঁর ওয়েলস দলের সহকারী কোচ পেজ। বিবিসিকে তিনি বলেছেন, ‘আমার কাছে মনে হচ্ছে সে আবার ফুটবলটা উপভোগ করতে শুরু করেছে। সে ওয়েলসের হয়ে খেলতে ভালোবাসে। সত্যি এটা ভালোবাসার জায়গা। আমি যখন থেকে ওয়েলস দলে আছি তাকে কখনো জাতীয় দলের ক্যাম্প মিস করতে দেখিনি।’ একমাত্র চোটে পড়লেই বেল জাতীয় দলের ক্যাম্প মিস করত বলে জানিয়েছেন পেজ।

ফুটবলের প্রতি বেলের ভালোবাসাটা কী রকম তা বোঝাতে গিয়ে পেজ বলেছেন, ‘অনুশীলনে দরজা দিয়ে ঢোকা প্রথম ব্যক্তিটি থাকে সে। যখন সে অনুশীলনে আসে তার মনে যেন বসন্তের আনন্দ থাকে। কয়েক দিন ধরে আমি তার মধ্যে এটা আবার দেখতে পাচ্ছি।’ বেল কেন আবার ফুটবলের প্রতি পুরোনো সেই ভালোবাসা খুঁজে পেয়েছে, তার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন পেজ, ‘সে এখন টটেনহামে আছে। যে দলের কোচ তাকে প্রতি ম্যাচেই খেলাতে চায়। সব মিলিয়ে আমরা এমন একজন খেলোয়াড় পেয়েছি, যে কিনা ফুটবলের প্রতি হারানো ভালোবাসা আবার ফিরে পেয়েছে।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here