চুল হবে মজবুত ও প্রাণবন্ত ৭টি প্রাকৃতিক তেলের নির্যাসে - Chuadanga News | চুয়াডাঙ্গা নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Sidebar Ads

test banner

Breaking

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Tuesday, November 24, 2020

চুল হবে মজবুত ও প্রাণবন্ত ৭টি প্রাকৃতিক তেলের নির্যাসে


প্রতিটি মেয়েই চায় সুন্দর, ঝলমলে ও প্রানবন্ত চুল। কিন্তু বর্তমান সময়ে এরকম চুল পাওয়া অনেকটা অসাধ্যের বিষয়। কেননা আজকের মেয়েরা যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ঘরে-বাইরে সব জায়গাতে সমানভাবে ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। 


সংসার, অফিস, ক্লাশ এসবকিছু নিজেই সামলে নিচ্ছে। বাইরের ধুলোবালি, পল্যুশন, রোদ আমাদের চুলকে অনেক বেশি ড্যামেজ করে দেয়, যা চটজলদি রিপেয়ার করা বেশ কঠিন। আবার সময়ের অভাবে অনেকসময় চুলের যত্নই নেয়া হয় না। তাহলে কিভাবে পাবো মজবুত ও প্রাণবন্ত চুল? ঠিক ৩ মাস আগেও আমার চুলেরও এমনই খারাপ অবস্থা ছিল! কিন্তু কিভাবে পেলাম মজবুত ও প্রাণবন্ত চুল, সেই এক্সপেরিয়েন্সটাই আজ শেয়ার করবো।


মজবুত ও প্রাণবন্ত চুলের গল্প

যেহেতু চাকরিজীবী হিসেবে আমাকে প্রতিদিনই ঘরের বাইরে বের হতে হয়, সেলফ কেয়ার করার টাইম সবসময় পায় না। তাই চুলের অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে গিয়েছিল। ফ্যামিলি এবং ফ্রেন্ডদের পরামর্শ অনুযায়ী কত কি না ব্যবহার করলাম! কখনো এই ভেষজ তেল, কখনো ওই ড্যামেজ কন্ট্রোল শ্যাম্পু । কিন্তু না, কিছুতেই ভালো ফল পেলাম না! 


চুল হয়ে যায় রুক্ষ, প্রাণহীন, সেই সাথে হেয়ারফল হতে থাকে খুবই ভয়াবহ ভাবে। বলে রাখি, আমার হেয়ারে রিবন্ডিং করা ছিল, এখন আবার কালারও করেছি। ড্যামেজ হেয়ার নিয়ে চিন্তার শেষ নেই!


এক কলিগের পরামর্শে ব্যবহার করা শুরু করলাম “ইমামি সেভেন অয়েলস ইন ওয়ান নন-স্টিকি হেয়ার অয়েল”। 


অনেকটা হতাশ হয়েই আমি এই তেলটি ব্যবহার করা শুরু করি। কিন্তু নিয়মমতো ব্যবহার করার ২ সপ্তাহ পরেই বুজতে পারি, এই তেলটি কিন্তু অন্য তেল থেকে আলাদা! চুলে হাত দিলেই ফিল করতে শুরু করলাম পার্থক্যটা।


“ইমামি সেভেন অয়েলস ইন ওয়ান নন-স্টিকি হেয়ার অয়েল” এবং আমার এক্সপেরিয়েন্স   

কিছু সপ্তাহ তেলটি ব্যবহার করে আমি আমার চুলের ইম্প্রুভমেন্ট দেখে নিজেই খুব অবাক হই। আমার চুল আগের থেকে কোমল ও মসৃণ হয়ে ওঠে। একটু খসখসে ভাব ছিল চুলে, যেটা অনেকটাই ঠিক হয়ে আসে তেলটি ইউজ করার পর। চুল পরার সমস্যাটাও কমে যেতে থাকে, কারণ জট ছাড়াতে আর আগের মতো যুদ্ধ করতে হয় না! আমার চুল এখন অনেক বেশি স্ট্রং এবং হেলদি। কালার করা হলেও চুল শাইনি দেখায়। আমার চুলের সমস্যা এবং এর সমাধানের অভিজ্ঞতাটাই আপনাদের সাথে শেয়ার করার উদ্দেশ্যে এই রিভিউটি দেয়া।


কী কী বিশেষ উপাদান আছে এই তেলে?

নাম শুনেই বুজতে পারছেন “ইমামি সেভেন অয়েলস ইন ওয়ান নন-স্টিকি হেয়ার অয়েল”-এ আছে ৭টি ন্যাচারাল অয়েলের সংমিশ্রণ। ৭টি প্রাকৃতিক উপাদানের বেনিফিট পাচ্ছেন একই সাথে। এই অসাধারন ব্লেন্ডিং আপনার চুলকে হায়েস্ট বেনিফিট দিচ্ছে একটি তেলের মাধ্যমেই! চলুন জেনে নেই কোন ৭টি উপাদান আছে এতে এবং এর উপকারিতাগুলো কী।


আরগান অয়েল: এই মিরাকেল তেল চুলকে হাইড্রেট রাখে আর মসৃণ করে তোলে।


ওয়ালনাট অয়েল: পটাসিয়াম সমৃদ্ধ এই তেল চুলকে আরও শক্তিশালী এবং স্বাস্থ্যকর করে তুলতে বিশেষ ভূমিকা রাখে।


আমন্ড অয়েল: বাদাম তেল বিভিন্ন ভিটামিনে ভরপুর। ভিটামিন এ, বি, ডি এবং ই এর মতো উপাদান রয়েছে যা চুলকে কন্ডিশনড এবং শাইনি করে তোলে। সেই সাথে হেয়ারফল কমিয়ে আনতে হেল্প করে।

কোকোনাট অয়েল: খনিজ ও প্রোটিন সমৃদ্ধ এই তেল চুলকে ময়েশ্চারাইজ করে আর স্ক্যাল্পে রক্ত সঞ্চালন বাড়াতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে।


আমলা তেল: ভিটামিন সি এবং খনিজ সমৃদ্ধ এই তেল চুল ঘন করে, চুলের রঙ ঠিক রাখে, সান ড্যামেজ রিপেয়ার করে।


অলিভ অয়েল: অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এই তেল চুলের গোঁড়ায় পুষ্টি জোগায় এবং খুশকি দূর করে।


জোজোবা তেল: চুলের আর্দ্রতা এবং পুষ্টি বজায় রাখতে সাহায্য করে, চুল পরা রোধ করে এবং বাহ্যিক ক্ষতি থেকে রক্ষা করে।


তেলটির বিশেষ কিছু দিক যেগুলো আমার ভালো লেগেছে

এই তেল নন-স্টিকি ফর্মুলাতে তৈরি। তাই আপনি যেকোনো সময় চুলে এই তেল অ্যাপ্লাই করতে পারবেন। তেলটি সব ধরনের চুলে ইউজ করা যাবে। আমি সপ্তাহে ২-৩ দিন অয়েল ম্যাসাজ করি, মাঝে মধ্যে হেয়ার প্যাকের সাথেও চুলে আর স্ক্যাল্পে অ্যাপ্লাই করি। আর ইমামি সেভেন অয়েলস ইন ওয়ান নন-স্টিকি হেয়ার অয়েলের ফ্রেগ্রেনসটাও কিন্তু খুবই হালকা ও মিষ্টি, যা আমার খুব প্রিয়। প্যাকেজিংটাও বেশ ভালো লেগেছে। আর একটা তেল থেকেই যখন এতোগুলো প্রাকৃতিক উপাদানের পুষ্টি পাওয়া যাচ্ছে, আর কি চায় বলুন!

“ইমামি সেভেন অয়েলস ইন ওয়ান নন-স্টিকি হেয়ার অয়েল” ক্লেইম করে থাকে এটি চুল পড়া ৯৬% কমায় এবং চুলকে ২০ গুন পর্যন্ত শক্তিশালি করে তোলে, ভেতর থেকে চুলকে মজবুত করে আর বাইরে থেকেও সেট রাখে। 


আমার এক্সপেরিয়েন্সটা কিন্তু এমনই ছিল। আশেপাশের অনেকেই এই পরিবর্তন দেখে জিজ্ঞেসাও করেছে! আসলে চুল সুন্দর ঝলমলে হলে আপনার কনফিডেন্সটাও কিন্তু অনেকটা বেড়ে যাবে। “ইমামি সেভেন অয়েলস ইন ওয়ান নন-স্টিকি হেয়ার অয়েল” ৩টি সাইজে পাওয়া যায়। ১০০মিলি, ২০০মিলি ও ৩০০মিলি, আপনার সুবিধামতো কিনে ব্যবহার করে দেখতে পারেন।


এই ছিল আমার নিজের অভিজ্ঞতা, মজবুত ও সুন্দর চুল পাওয়ার গল্প! আশা করি আপনার অভিজ্ঞতাও আমার মতই হবে। চুলের সমস্যার সমাধানতো পেয়ে গেলেন, তাহলে ইউজ করে আমাদের সাথেও আপনার সুন্দর চুল পাওয়ার গল্পটা শেয়ার করুন। সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here