১০টি এক্সক্লুসিভ স্টাইল হিমহিম শীতে স্কার্ফ এর! - Chuadanga News | চুয়াডাঙ্গা নিউজ | ২৪ ঘন্টাই সংবাদ

Sidebar Ads

test banner

Breaking

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Wednesday, December 2, 2020

১০টি এক্সক্লুসিভ স্টাইল হিমহিম শীতে স্কার্ফ এর!


শীত মানেই হাইফাই ফ্যাশন। কালারফুল চারদিক। শীত ফ্যাশনের জন্য বেস্ট একটা সময়। শীতে ওয়েস্টার্ন, ট্রেডিশনাল, ফিউশন, যাই পরা হোক না কেন সাথে চাদর আর স্কার্ফ থাকেই। স্কার্ফ কামিজ, কুর্তি, ওয়েস্টার্ন-এর সাথে বেশি যায়। স্কার্ফ পরতেও ইজি। স্কার্ফ অনেক স্টাইলে পরা যায়। এই স্কার্ফ ও চাদর কী করে আরেকটু স্টাইলিশ করে পরবেন এই শীতে, আজকে আমরা সেটা নিয়েই বলবো।

স্কার্ফ সবসময়ই কিন্তু মোটামুটি পরা হয়। ওয়েস্টার্ন বা কুর্তির সাথে পরলে দেখতেও ভালো লাগে। স্কার্ফ-এর অনেক ডিজাইন আছে। এক কালারের, চেক, ফ্লোরাল প্রিন্ট-গুলো জামার সাথে ম্যাচ করে পরলে একটা ফিউশন লুক ক্রিয়েট হয়। স্কার্ফ পরাটাও সহজ, সহজেই স্টাইল করা যায়।


১) ফ্রেঞ্চ নট 

ফরাসি একটা স্টাইল। সহজে চট করে পরা যায়। ক্রপ টপ ও কুর্তির সাথে এই স্টাইল-টা ভালোই লাগে। স্কার্ফ-টা লম্বা করে ডাবল ফোল্ড করতে হবে, এরপর গলায় জড়িয়ে একটা সাইড নিয়ে আরেকটা সাইড-এর মধ্যে ঢুকিয়ে টেনে ক্রস করে ঝুলিয়ে দিতে হবে।


২) নটেড টাই 

শীতের টাইম এর জন্য এটি বেশ ভালো। গলাটাকে কাভার করে। স্কার্ফ-টা ট্রায়েঙ্গেল করে গলার পিছন থেকে নিয়ে সামনে এনে গিট্টু (knot) করে দিলেই হয়ে যাবে। ঘাড়ের পিছনে একটু ঝুলে থাকবে স্কার্ফ-টা।


৩) নেকলেস স্টাইল

এই স্টাইল-টা খুবই সুন্দর। খুব সুন্দর করে গলায় একটা নেকলেস-এর মতো পড়ে থাকে। স্কার্ফ-এ যদি কোন কাজ করা থাকে তাহলে এই 


স্টাইল-টা দেখতে বেশ ভালো লাগবে। স্কার্ফ-টাকে সমান করে ভাজ করে, ক্রস করে গিট্টু (knot) দিতে হবে। এরপর ক্রস করে গলায় দিয়ে এক সাইড থেকে নিয়ে আরেকটি সাইড ঢুকিয়ে দিলেই হয়ে যাবে।


৪) ডাবল সাইডেড টুইস্ট

খুবই সিম্পল। আমরা বেশিরভাগ এমনভাবে স্কার্ফ-টা পরে থাকি। গলার দুই পাশ দিয়ে নিয়ে ডাবল ফোল্ড করলেই হয়ে গেল।


৫) কোজি নেক র‍্যাপ

ঠাণ্ডার জন্য খুবই পারফেক্ট এবং স্টাইলিশ। আপনার ঠাণ্ডা লেগেছে চাদর না মুড়িয়ে এইভাবে স্কার্ফ-টি পরতে পারেন। গলার দুই পাশ থেকে নিয়ে ডাবল ফোল্ড করে দুইটা সাইড গিট্টু (knot) দিয়ে ভাজ করে ভিতরে গুজে দিতে হবে।


৬) ডাবল লুপ

ডাবলভাবে পেঁচিয়ে একটা সাইডের কনা নিয়ে ফোল্ড-এর মধ্যে ঢুকিয়ে সাইড থেকে গিট্টু (knot) দিলেই হয়ে গেলো।


৭) ইন্ডিয়ান স্টাইল

শাল বা স্কার্ফ পিছন থেকে জড়িয়ে সামনে আনতে হবে। এরপর এক সাইড থেকে একটা পার্ট একটু উঁচু করে পিন দিয়ে আটকিয়ে আরেকটা সাইড ঝুলিয়ে দিতে হবে। ঠিক এটাকে উল্টা করে দিলে আরেকটি স্টাইল হয়ে যায়।


৮) সাইড নট

স্কার্ফ-টাকে গলার এক সাইড থেকে গিট্টু (knot) দিলেই হয়ে গেলো এই সহজ স্টাইল-টি।


৯) ভিনটেজ র‍্যাপ

স্কার্ফ-টাকে লম্বা ফোল্ড করে ট্রায়েঙ্গেল-এর মতো করে এরপর দুইটা কোনা মাথার উপর দিয়ে নিয়ে ঘাড়ের পেছনে গিট্টু (knot) দিতে হবে। হলিউড-এর পুরানো মুভি- গুলোতে এই স্টাইল-টি দেখা যেতো।


১০) শর্ট নট

ছোট সাইজ-এর স্কার্ফ-গুলো দিয়ে এই স্টাইল-টা ভালো হয়। গলার এক সাইডে নিয়ে এক প্যাচ দিলেই হয়ে গেলো স্টাইল।


যে স্টাইল-গুলো নিয়ে আজ কথা হল প্রত্যেকটাই ডিফ্রেন্ট। সবগুলো ডিজাইন কামিজ, ওয়েস্টার্ন, কুর্তি- সব কিছুর সাথে দারুণ লাগবে। 


শীতে স্কার্ফ ব্যবহার করুন এবং নিজের মধ্যে আনুন ডিফ্রেন্ট একটি লুক।

তাহলে এই কনকনে হিমেল শীতল ঠাণ্ডায় থাকুন স্টাইলিশ। সাথে সুস্থ, মনে রাখবেন ঠাণ্ডা কিন্তু লাগানো যাবে না। আর মনে রাখবেন-


“Do well, live well & dress really well………!”

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here